প্রচ্ছদ > জাতীয় >

সেমিনারে বক্তারা জ্বালানির ক্ষেত্রে ইউরোপ ও বাংলাদেশের ধারণা এক নয়

| 06 December, 2022
img

জ্বালানির ক্ষেত্রে ইউরোপীয় ধারণার সঙ্গে একমত নয় বাংলাদেশ। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইউ) যেভাবে এই খাতে সহযোগিতা দিতে চায়, তা নিয়ে সরকার ভিন্নমত পোষণ করে। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর একটি হোটেলে ‘সবুজ জ্বালানির রুপান্তরে বিনিয়োগ: বাংলাদেশ ও ইউরোপের মধ্যে পারস্পারিক সহযোগিতা’ শীর্ষক এক সেমিনারে এমন মন্তব্য করেন বক্তারা। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, ইইউ ডেলিগেশনের রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইটলিসহ অন্যরা বক্তব্য দেন।

তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, ‘ট্রানজিশন অর্থ হচ্ছে এক স্তর থেকে অন্য স্তরে উন্নীত হওয়া। ইউরোপ দীর্ঘদিন ধরে উন্নতির একটি পর্যায়ে রয়েছে এবং তারা এখন অন্য একটি স্তরে উন্নীত হচ্ছে। তাদের ক্ষেত্রে জ্বালানির ট্রানজিশন হতে পারে। কিন্তু বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশ, যার লক্ষ্য হচ্ছে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি। সেখানে জ্বালানির বিবর্তন হতে পারে, কিন্তু ট্রানজিশন নয়। বাংলাদেশ সরকার সবার কাছে সুলভে, নিরবিচ্ছিন্নভাবে এবং মানসম্মত জ্বালানি সেবা পৌঁছে দিতে চায়। বাংলাদেশের মাথাপিছু বার্ষিক দূষণের পরিমাণ এক টনেরও কম। অন্যদিকে ইউরোপের ক্ষেত্রে এটি সাত থেকে ১৫ টন। বর্তমানে ইউরোপ দুই লাখ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে কয়লা থেকে যেখানে বাংলাদেশ করে মাত্র দুই হাজার মেগাওয়াট।’